অটোমেটিক দই মেকার

৳ 1,500.00 ৳ 850.00

Product Code: E14203 Category:

Description

বাসায় বসে নিজের হাতে তৈরি করুন স্বাস্থ্যকর দই ।
অটোমেটিক দই মেকার এর সঙ্গে পাবেন এক বছরের ওয়ারেন্টি।
আমরা বাজার থেকে দই কিনে খাই, সেই দই কতটুকু স্বাস্থ্যসম্মত সেইটা কি আমরা কখনো যাচাই করি?
তাই এখন আর বাজারের দই না ” আমরা নিজেরাই ঘরে বসে নিজ হাতে তৈরি করবো স্বাস্থ্যসম্মত দই।

দই মেকারে দই বানানোর নিয়ম / দই মেকারে দই তৈরির রেসিপি :
ফ্রেস গরুর দুধ নিবেন ১.৫( দেড়) লিটার। ভূলেও পানি মিলাবেন না। আপনি নিজেই যদি দুধ এ ভেজাল হিসেবে পানি মিলান, তাহলে খাটি দই কখনোই পাবেন না। আপনি কি রকম মিষ্টি খান তার উপরে ডিপেন্ড করে দুধ এ চিনি মিশাবেন। ভালোভাবে চিনি মিশিয়ে দুধ চুলায় বসাবেন। দুধ জ্বাল ( চুলায় বসিয়ে) দিয়ে ফুটে উঠলে আচ কম করে দিবেন ( মানে চুলার পাওয়ার কমিয়ে দিবেন) ।
দুধ জ্বাল হয়ে অর্ধেক পরিমান হলে একটি কাপে অল্প দুধ নিয়ে ঠান্ডা করে তাতে দুই টেবিল চামচ ( টি চামচ নয় কিন্তু, টেবিল চামচ) গুড়া দুধ ( যেকোনো কম্পানির গুড়ো দুধ দিতে পারেন) গুলে ঘন দুধের সাথে মিশাবেন। দুধ ঠান্ডা করে নিবেন তবে যেন কুসুম গরম থাকে, এর সাথে আড়ং বা প্রানের টক দই হাফ কাপ ভালো করে ফেটে দুধের সাথে মিশাবেন। একটি জাঝরিতে( চালুনিতে) ছেকে নিয়ে দই মেকারের পাত্রে ঢেলে ঢাকনা দিয়ে বন্ধ করে সুইচ অন করে দিয়ে ৪/৫ ঘন্টা রাখতে হবে।
দই মেকার নাড়াচাড়া করবেন না। এই ৪/৫ ঘন্টার মাঝে কারেন্ট চলে গেলেও দই মেকার এর ঢাকনা খুলবেন না। ৪/৫ ঘন্টা পর সুইচ অফ করে এক ঘন্টা পরে পাত্র বের করে ফ্রিজে রাখবেন। অন্তত তিন ঘন্টা ফ্রিজে রেখে তার পরে বের করে খাবেন।

ইলেক্ট্রিক দই মেকার দিয়ে কি কি বানানো যায়?
এই ইলেক্ট্রিক দই মেকার দিয়ে আপনি চাইলে পুডিং বানাতে পারবেন। আবার পানি গরম করতে পারবেন।

ডেলিভারি পদ্ধতি
ফোনে অর্ডারের জন্য ডায়াল করুন
01777-458378
01832- 828 460
সারা বাংলাদেশে ২৪ থেকে ৪৮ ঘণ্টার মধ্যে ডেলিভারি
ডেলিভারি খরচ
ঢাকার মধ্যে ৬০ টাকা।
ঢাকার বাইরে ১০০ টাকা।